চাকুরি ও ব্যবসা

আপনার মধ্যে হার না মানার মানসিকতা থাকতে হবে

আপনার মধ্যে হার না মানার মানসিকতা থাকতে হবে। বললেন- স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আমাল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ইশরাত করিম

বাল্যবিবাহ, নারী নির্যাতন, বিধবা নারীসহ পিছিয়ে পড়াদের উন্নয়নে কাজ করছে ইশরাত করিমের এই ফাউন্ডেশন।

অনন্য এই কাজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত সাময়িকী ফোর্বস ২০২০ সালে তাঁকে এশিয়ার ৩০ বছরের কম বয়সী ৩০ জনের তালিকায় সামাজিক উদ্যোক্তা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

শিক্ষাজীবন থেকেই উন্নয়ন খাতের প্রতি আগ্রহ ছিল আমার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিন্যান্স বিভাগে পড়াশোনার সময় থেকে সামাজিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত ছিলাম।

বিভিন্ন সামাজিক কাজের ভলান্টিয়ার হিসেবে ছিলাম। এসব নিয়ে গবেষণাও করতাম। সামাজিক উদ্যোক্তা হওয়ার ইচ্ছে তখন থেকেই।

এরপর গেলাম যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডোয় পড়তে। সেখানে পড়াশোনার পাশাপাশি বিশ্বখ্যাত দাতব্য সংস্থা ‘বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনে’ চাকরি করতাম।

পড়াশোনা শেষে দেশে ফিরে আসি। নিজের কিছু হোক বা চাকরি যা-ই করি না কেন, উন্নয়ন খাতেই করব, এটাই ছিল স্বপ্ন। সেই মন থেকেই ২০১৫ সালে নিজের প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি।

শুরুতে কিন্তু মানুষের সহযোগিতা পাইনি। বলা যায় শূন্য সহযোগিতা পেয়েছি। পরিবারের অনেকেই চেয়েছিল ক্যারিয়ারটা দেশের বাইরেই গড়ি।

আসলে যুক্তরাষ্ট্রে খুব ভালো চাকরি করতাম, ভালো বেতন, সেসব ছেড়ে চলে আসাটা সবার কাছে প্রত্যাশিত ছিল না। তবে নিজের কিছু করার তাগিদে চলে এসেছি।

অবশ্য পরিবারের কোনো কোনো সদস্য অনেক সাহায্য করেছেন। এমনকি তহবিল দিয়েও সাহায্য করেছেন। করোনার কালেও অনেক করেছি আমরা। বর্তমানে ৩০টির বেশি প্রজেক্ট হাতে আছে আমাদের।

এগিয়ে যাওয়ার পথে যে বাধা

আসলে নারীদের এগিয়ে যাওয়ার পথে সামাজিক বাধা পদে পদে। শিক্ষিত ও সভ্য মানুষদের বাধাটা অন্য রকম হয়। সেগুলো অনেক পরিকল্পিত হয়, জটিল হয়। পেরোনোটা কঠিন।

এর মধ্যে বয়স কম হলে গুরুত্ব দেয় না, মেয়ে বলে কথার গুরুত্ব দেওয়া হয় না। অনেক রকম জটিলতার মুখোমুখি হতে হয়। তবে এই সব মোকাবিলা করার জন্য সবার আগে সৎ সাহসের প্রয়োজন।

হার না মানার মানসিকতা থাকতে হবে। কারণ, একজন নারী এগিয়ে গেলে আরও ৫০ জন এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা পান। এ ছাড়া সব সময় হালনাগাদ থাকতে হবে। জানতে হবে বুঝতে হবে।

আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে এগিয়ে গেলে ভালো উদ্যোক্তা হওয়া সম্ভব।

আপনার মধ্যে হার না মানার মানসিকতা থাকতে হবে (সূত্র: প্রথম আলো)

আপনি আরও পছন্দ করতে পারেন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *