জাতীয় বার্তানতুন আগত

পুটিজলা রাস্তার বেহাল অবস্থা:ভোগান্তিতে গ্রামবাসী

কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের অন্তর্গত পুটিজলা গ্রামের একমাত্র চলার রাস্তাটি স্বাধীনতার পরবর্তী সময় থেকে আজ পর্যন্ত উন্নয়ন ও সংষ্কারে বার বার পিছিয়ে থাকে। এই গ্রামে বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা ইতিমধ্যে প্রয়াত হয়েছেন বর্তমানে দুজন মুক্তিযুদ্ধ রয়েছেন যারা বারবার এ রাস্তাটি সংস্কারের জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে যাচ্ছে কিন্তু অদ্যাবধি রাস্তাটি সংষ্কার ও পাকাকরণ কাজ করা সম্পন্ন করা হয় নাই।

এলাকার জনসাধারণের জন্য বিশেষ করে স্কুল-কলেজগামী ছাত্র ছাত্রী এবং ব্যবসায়ীদের প্রতিদিন যাতায়াতের জন্য অনেক সমস্যা হয়। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে যোগাযোগ ব্যবস্থা মারাত্মক নাজুক অবস্থা হয়ে দাঁড়ায়। রাস্তা ব্যবহার করে একজন রোগীকে গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়না, বেশ কয়েকটি জায়গায় পানি জমে হাটু অবদি কাদা হয়ে যায়।

বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে। “মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার সড়ক হবে সংস্কার” এই স্লোগানের বাস্তবায়ন চায় পুরো গ্রামবাসী। এই রাস্তাটি পাকা করন করা হলে অন্তত স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে গ্রামের মুক্তিযুদ্ধারা মনে শান্তি পাবে এমনটাই বলেছেন মুক্তিযুদ্ধা হারুন রশিদ চৌধুরী ও মুক্তিযুদ্ধা বাচ্ছু মিয়া।

গ্রামের পাশে মন্তলি থেকে চিলপাড়া ব্রিজ পযর্ন্ত বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন জায়গা থেকে বিশেষ করে কুমিল্লা, নোয়াখালী ও ফেণী অঞ্চল থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এখানে আসে। প্রকৃতির শিতল হাওয়ায় অবগাহন করতে ও নৌকায় চড়ে বিনোদনের জন্য এখানে আসে । রাস্তাটি সংস্কার হলে গ্রামের মানুষদের এবং আগত পর্যটকদের দেখতে ভালো লাগবে এবং তারা আরও ভাল করে এই পর্যটনসমৃদ্ধ এলাকায় প্রকৃতির সাথে মিশে যেতে পারবে। এলাকায় শিক্ষা-সংস্কৃতি বিস্তার লাভ করবে অবহেলিত ও বঞ্চিত মানুষ জন এবং সুবিধাবঞ্চিত মানুষের উপকার সাধিত হবে । মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার সড়ক হবে সংস্কার এই স্লোগানটি বুকে ধারণ করে এবং মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার মাথায় নিয়ে সরকারের প্রশাসনযন্ত্রের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য দ্রুত পদক্ষেপে যাতে এগিয়ে আসে গ্রামবাসী এটাই প্রত্যাশা করে।

গ্রামবাসী আশা করে মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এর নির্বাচনী অঙ্গীকার ও বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের মধ্যে এই রাস্তাটি ও যাতে অতি দ্রুত সংস্কার ও পাকাকরণ করা হয় তাহলে এলাকাবাসীর উপকার সাধিত হবে ও শিক্ষা দীক্ষার উন্নতি ঘটবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *